অনু কবিতা

0
0

মানিক বৈরাগীঃ
প্রমোদ বালকের পোঁদে কেশ গজালে
জানান দেয় সর্বত্র পোঁদাপোঁদি করে।

মেধা ও ক্ষমতায় তখনি কুৎসিত হয়
যখন বংশগত দরিদ্রতায় লালিত হয়

বংশগত দরিদ্র লোক যদি হয় ধনী
প্রতিবেশী অহংকারে পিষ্ট হয় জানি

অক্ষর বিহীন পিতার ছেলে শিক্ষিত হলে
তার বউয়ে বাবা-মা কে চাকর বলে ডাকে

বিরহ তখোনই মধুময় হয়
ঝগড়া বিবাদ শিল্পময় হয়


পেট- পটের ক্ষুধা ও বুঝেনা খোদা
এক ছাদে একি খাটে আমরা জুদা

ভাতার যখন জোগাতে ব্যর্থ
প্রেমের মায়া যন্ত্রনার অস্ত্র

আদর্শ দর্শন জ্ঞান নৈতিকতা বিবেক
মনো দৈহিক সক্ষমতা যদি থাকে এক
রুপ জস শিল্পে রুশ্নির মৌতাতে এক।

বেখেয়ালে যায় চলে দিন
আমার অপেক্ষা সীমাহীন
১০
প্রতিক্ষা আর অপেক্ষা জমজ
দিল দরিয়ায় ঝাপদেয়া কি সহজ?
১১
একলা হাটি একলা চলি একলা করি কাজ
পেছন ফিরে থাকিয়ে দেখি অনেকেই বেলাজ
১২
কোলাহল কলরবেও তোমায় ডাকি খোদা
নামাজ কালাম নাহোক ঠিক তোমারি বান্দা
পরপারে তরাই করো আমি তোমারি বান্দা
১৩
রবের ভাবে সাতার কেটে নাপাই কিনার কুল
নবীর নিশান গাউস কুতুব পীরতে মশগুল

১৪
হারাম হালাল জেনে করো ফিকির
হারাম হালাল মেনে করো জিকির
পেরেশান অপমানে হয়না দ্বিন সংসার
বেহালালে বিফল হবে ইবাদত আখেরাত।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here