অর্থনীতিতে আরও এক বাঙালির নোবেল জয়

0
8

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ
বিশ্ব থেকে দারিদ্র্য দূরীকরণে এক অসামান্য পরীক্ষামূলক পদ্ধতির জন্য চলতি বছর অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন এক ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিন বাঙালি অধ্যাপকসহ তিন অর্থনীতিবিদ। সোমবার স্টকহোমে দ্য রয়্যাল সুইডিশ একাডেমি অব সায়েন্সেস এ পুরস্কার ঘোষণা করে।

নোবেল কমিটির পক্ষ থেকে জানানো হয়, দারিদ্র্য লাঘবে পরীক্ষামূলক গবেষণার কারণে ভারতের অভিজিত ব্যানার্জি, ইসথার ডাফলো এবং মাইকেল ক্রেমারকে অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার দেয়া হয়েছে।

ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিন নাগরিক অভিজিত ব্যানার্জি যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির (এমআইটি) অধ্যাপক। এছাড়া ফরাসী বংশোদ্ভূত মার্কিন নাগরিক ইসথার ডাফলোও এমআইটির অধ্যাপক এবং অপর বিজয়ী মাইকেল ক্রেমার যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক ও হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক।

ভারতে জন্ম নেয়া ৫৮ বছর বয়সী অভিজিত ব্যানার্জি যুক্তরাষ্ট্রের হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যায়ল থেকে পিএইচডি শেষে এআইটিতে অ্যধাপনা করছেন। অপরদিকে প্যারিসে জন্ম নেয়া ৪৭ বছর বয়সী ইসথার ডাফলো এমআইট থেকে পিএইচডি শেষ সেখানেই পড়াচ্ছেন।

অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার বিজয়ী প্রথম বাঙালী হলেন ভারতীয় অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন। দুর্ভিক্ষ, মানব উন্নয়ন তত্ত্ব, জনকল্যাণ অর্থনীতি ও গণদারিদ্রের অন্তর্নিহিত কার্যকারণ বিষয়ে গবেষণা এবং উদারনৈতিক রাজনীতিতে অবদান রাখার জন্য ১৯৯৮ সালে তিনি অর্থনৈতিক বিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কার লাভ করেন।

নোবেল বিজয়ী ফরাসি বংশোদ্ভূত মার্কিন অধ্যাপক ইসথার ডাফলো অভিজিতের স্ত্রী। দ্বিতীয় নারী অর্থনীতিবিদ হিসেবে অর্থনীতিতে নোবেল পেলেন তিনি। সর্বকনিষ্ঠ অর্থনীতিবিদ হিসেবে অর্থনীতিতে নোবেল পাওয়ার কৃতিত্বও দেখালেন ডাফলো। গত ৫০ বছরে কোনো নারী অর্থনীতিতে নোবেল পায়নি।

অর্থনীতিতে নোবেল জয়ী আরেক মার্কিন নাগরিক মাইকেল ক্রেমার হার্ভার্ড থেকে পড়াশোনা শেষ করে সেখানেই অধ্যাপনার কাজে নিযুক্ত আছেন। পুরষ্কারের অর্থমূল্য ৯০ লাখ ক্রোনার তাদের সবার মধ্যে সমানভাবে বন্টন করা হবে।

১৯৬৮ সালে সুইডিশ কেন্দ্রীয় ব্যাংক সেভেরিজেস রিক্সব্যাংক তাদের ৩০০ বছর পূর্তিতে নোবেল ফাউন্ডেশনকে একটি বিরাট অঙ্কের অর্থ দান করে। তারপর সেই অর্থ দিয়ে ১৯৬৯ সাল থেকে আলফ্রেড নোবেল এর সম্মান রক্ষার্থে অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার প্রদান করা হয়।

২০১৯ সালের নোবেল বিজয়ীদের নাম ঘোষণা শুরু হয়েছে গত ৭ অক্টোবর থেকে। ওইদিন স্টকহোম ক্যারোলিনস্কা ইনস্টিটিউট থেকে চিকিৎসাবিদ্যায়, দ্য রয়াল ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স থেকে ৮ অক্টোবর পদার্থবিদ্যায় এবং ৯ অক্টোবর রসায়নে নোবেল বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়।

গত ১০ অক্টোবর সুইডিশ একাডেমি সাহিত্যে এবং ১১ অক্টোবর নরওয়েজিয়ান নোবেল কমিটি শান্তিতে নোবেল পুরস্কার ঘোষণা করে। এরপর আজ অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার বিজয়ীর নাম ঘোষণা করলো। এর মধ্য দিয়ে এবারের নোবেল পুরস্কার ঘোষণা শেষ হলো।

সূত্রঃ জাগোনিউজ

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here